বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ১২:২৯ পূর্বাহ্ন
Title :
সরকারি সিটি কলেজের নবগঠিত ছাএ সংসদ তাসিন-মোনাফ-বেলাল পরিষদের বৈকালিক শাখার কমিটির কর্মসূচি    জোয়ার-বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের বাকলিয়ার মানুষও ভাসছেন বন্যায় জনশুমারি ও গৃহগণনা উপলক্ষে রাঙামাটিতে বর্ণাঢ্য র‍্যালী শাহাদাতে কারবালা মাহফিল বন্ধের ঘোষনায় সুজনের উদ্বেগ ৯৬বোতল ফেনসিডিল সহ দর্শনা রামনগরের মাদক ব্যাবসায়ী হৃদয় পুলিশের হাতে আটক চট্টগ্রাম-আবুধাবি-মদিনা সরাসরি ফ্লাইট বন্ধ করায় উদ্বেগ প্রকাশ সুজনের থ্যালাসেমিয়া রোগীদের জন্য সুখবর নিয়ে এলো এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকা যুবকের ভাঙা কাচের টুকরোর আঘাতে গৃহবধূ আহতের ঘটনায় গ্রেফতার ০১ নড়াইল জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে দুদিনব্যাপী শিশুমেলার সমাপনী ও পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত চুয়াডাঙ্গায় ৬৬০ বোতল ফেনসিডিলসহ ২ মাদক পাচারকারী আটক




আধুনিকতার ছোঁয়ায় হারিয়ে যাচ্ছে খেজুর রস!

মিরু হাসান,আদমদিঘী প্রতিনিধি
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৯ Time View

আবহমান বাংলার এই ছবি বলে দেয় এটি একটি শীতের সকাল। খুব ভোরে গাছ থেকে রস পেরে শহরের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করেন গাছিরা। এটিই বাঙালীর ঐতিহ্য। কালের পরিক্রমায় সকল ঐতিহ্য হারিয়ে গেলেও টিকে আছে এই ঐতিহ্য। সুমিষ্ট খেজুরের রস পছন্দ করে না এমন মানুষের সংখ্যা খুব কম।

কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের সকালে মিষ্টি রোদে মধুবৃক্ষ থেকে আহরণ এক গ্লাস সুমিষ্ট খেজুরের রস বাংলার মানুষকে সতেজ করে তোলে। আবার এই রস জ্বাল দিয়ে খেতে দারুণ সুস্বাদু। শীতকালে এই রস দিয়ে তৈরি গুড় ও পাটালির তুলনা হয় না। শীতের পিঠা-পায়েসের একটি অবিচ্ছেদ্য উপাদান খেজুরের রস। এক সময় দিগন্ত জুড়ে মাঠ কিংবা সড়কের দুই পাশে সারি সারি অসংখ্য খেজুর গাছ চোখে পড়লেও এখন দেখা মেলে হঠাৎ। কয়েক বছর আগেও এলাকার প্রতিটি বাড়িতে, কৃষি জমি ও ভিটাগুলোর পাশে ও রাস্তার দুই ধারে ছিল অসংখ্য খেজুর গাছ। গাছ সংকটের কারণে প্রতি বছরের মতো এ বছরও চাহিদা অনুযায়ী রস পাওয়া যাবে না বলে আশঙ্কা ব্যবসায়িদের।

একটা সময় শীতকালে শহর থেকে মানুষ ছুটে আসতো গ্রামবাংলার খেজুর রস খেতে। তখন রস আহরণকারী গাছিদের প্রাণচাঞ্চল্য লক্ষ্য করা যেত। রস জ্বালিয়ে পাতলা ঝোলা, দানা গুড় ও পাটালি গুড় তৈরি করতেন তারা। যার স্বাদ ও ঘ্রাণ ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন। এখন অবশ্য সে কথা নতুন প্রজন্মের কাছে রূপকথা মনে হতে পারে। কেননা সময়ের সাথে সাথে মানুষের মানসিকতার পরিবর্তন এসেছে। মানুষ এখন আধুনিকতার রাজ্যে দিকে ধাবিত হচ্ছে।

গাছিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সারা বছর অযন্তে-অবহেলায় পড়ে থাকা গ্রামগঞ্জের খেজুর গাছের কদর বাড়ে শীতের সময়। শীত মৌসুমের আগমনী বার্তার সঙ্গে সঙ্গে গ্রামবাংলার ঐতিহ্য খেজুর গাছের রস সংগ্রহে ব্যস্ত সময় পার করছেন গাছিরা। ভরা মৌসুমে রস সংগ্রহের জন্য শীতের আগমনের শুরু থেকেই প্রতিযোগিতায় মেতে উঠেছেন তারা। প্রতি বছর চার মাস খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করা হয়। একটি খেজুর গাছ আট থেকে দশ বছর পর্যন্ত রস দেয়।

রাজশাহী থেকে বগুড়ায় আসা রস ব্যবসায়ি ভুট্টু মিয়া জানান, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও খেজুর গাছের রসের ব্যবসার জন্য বগুড়া শহরে এসেছি। সরকারি আজিজুল হক কলেজ চত্ত¡র এলাকায় গাছের মালিকদের থেকে তিন মাসের চুক্তিতে গাছ নিয়েছি। খুব সকালে গাছ থেকে রস পেরে শহরের বিভিন্ন এলাকায় প্রতি গ্লাস ১০ টাকায় বিক্রি করি।




More News Of This Category




© All rights reserved © 2020 Dainik Dashar Manchitra
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin