রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন
Title :
কালীগঞ্জে ইজিবাইক এর চালককে গলা কেটে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনতাই কে.বি.এম. কলেজ পরিদর্শন করেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাজধানীর ডেমরা এলাকায় ট্রান্সমিটারে আগুন ধান্যখোলা গ্রাম থেকে শনিবার সন্ধ্যায় সমাসের আলী (৪৫) নামের এক ভ্যান চালকের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ তত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবেনাঃ আলহাজ্জ্ব শাহ জাহান চৌধুরী উলিপুরে মহিদেব যুব সমাজ কল্যাণ সমিতির আয়োজনে বিশ্ব গ্রামীণ নারী দিবস পালিত কুমিল্লায় পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল-কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত আরবদেশ ওমান ও শ্রী শ্রী দূর্গাপূজা উৎসব উদযাপন আদমদীঘিতে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদান পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করলেন মাধবপুরে ইউএনও




ভাড়া বৃদ্ধিতে অনাবাসিক শিক্ষার্থীদের বিরম্বনা

রিফাত ইসলাম, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি
  • Update Time : বুধবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৭ Time View

করোনাকালে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের সময়ে বৃদ্ধি পাওয়া ভাড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা।

গত বছরে করোনাকালীন সময়ে বৃদ্ধি পাওয়া এই অস্বাভাবিক ভাড়া দেড় বছরের বেশি সময় ধরে চলমান রয়েছে। এদিকে গত ১ সেপ্টেম্বর সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় থেকে গণ পরিবহনে স্বাভাবিক ভাড়া নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়।

নির্দেশনার দেড়মাস পার হলেও তার বাস্তবায়নের দেখা মিলছে না গোপালগঞ্জ মহা সড়কে চলমান মাহেন্দ্র, লেগুনা ও ইজিবাইকে ।

পূর্বে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত ভাড়া ২০ টাকা থাকলেও বর্তমানে তা ৩৫ টাকায় দাড়িয়েছে। আবার ঘোনাপাড়া থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত ৫ টাকা ভাড়ার জায়গায় বর্তমানে ১০ টাকায় বৃদ্ধি পেয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শহর পর্যন্ত ১০ টাকার যায়গায় ভাড়া বেড়ে ১৫ টাকা হয়েছে৷ এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক সংকট থাকায় গোপালগঞ্জ শিক্ষার্থীদের আবাসিক রাজধানী খ্যাত নবীনবাগ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পূর্বে ৫ টাকা ভাড়া থাকলেও এখন তা ১০ টাকা। যা ভাড়া হিসেবে প্রায় দ্বিগুণ হওয়ায় বর্তমানে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রায়ই পরিবহন চালকদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার ঘটনা ঘটছে।

যাত্রী সংখ্যা কম থাকায় এমনটি করছেন বলে দাবি পরিবহন চালকদের। আবার অনেক ক্ষেত্রে তারা যাত্রী সংখ্যা কম উঠানোর দাবি করলেও সরেজমিনে সম্পূর্ণ তার উল্টো চিত্র দেখা যায়। তাদের মতে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চলাচলের জন্য নিজস্ব বাস রয়েছে। তাছাড়া আমাদের পরিবহনের সংখ্যা হিসেবে যাত্রীও কম। এসব বিষয়ে বিবেচনা করেই ভাড়া বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী দ্বীন ইসলাম বলেন, দীর্ঘ দিন ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় আমাদের অনেকেরই টিউশন বন্ধ রয়েছে। আবার মেস মালিকরাও তাদের বকেয়া ভাড়ার জন্য চাপ দিচ্ছেন। এরমধ্যে আবার ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়া সত্যিই আমাদের জন্য বড় বিড়ম্বনা তৈরি হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সংগঠন, “বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক ফোরাম” শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সাথে এ বিষয়ে জরুরি আলোচনা করেছে। আলোচনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আশ্বস্ত করেছে তারা এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করবে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) মো. মোরাদ হোসেন বলেন, ভাড়া বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি শুনেছি। বিষয়টি আসলেই অনাকাঙ্ক্ষিত ছিল। আমরা দ্রুত উপাচার্যের সঙ্গে আলোচনা করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।




More News Of This Category




© All rights reserved © 2020 Dainik Dashar Manchitra
Design & Developed by: ATOZ IT HOST
Tuhin